ভারতের মধ্যপ্রদেশে পাওয়া গেল ডাইনোসরের জীবাশ্ম

ডাইনোসরের জীবাশ্ম পাওয়া গেল ভারতের মধ্যপ্রদেশে

0

ডাইনোসর এক আদিম প্রাণীর নাম। বিশাল আকার এর এই প্রাণীটি ছিল এক সময়ের সবথেকে বড় প্রাণী এটি দেখতে অনেকটা ভয়ঙ্কর। হলেও এটার কর্মকান্ডগুলো ভয়ঙ্কর ছিল না। কিন্তু কালের বিবর্তনে আজ আমাদের মাঝে ডাইনোসর নেই। শুধু ডাইনোসর মানে এমনটা নয় এদের চিহ্ন খুঁজে পাওয়া মুশকিল।

তবে অনেক বছর আগে মাঝে মাঝে মাটি খুঁড়ে কিছু কিছু ডাইনোসরের জীবাশ্ম পাওয়া যেত। সেইসব জীবাশ্ম সংগ্রহ করে অনেক দেশের চিড়িয়াখানায় রাখা হয়েছে বা যাদুঘরে রাখা হয়েছে। পরবর্তী প্রজন্মের মানুষদের কাছে ডাইনোসরের পরিচিতি তুলে ধরার জন্য।

কালের বিবর্তনে ডাইনোসর আমাদের মাঝ থেকে হারিয়ে গেলেও রেখে গেছে তার পরিচিতি বিশালাকার দেহের জন্য। ডাইনোসর আজ বিলুপ্ত তার পেছনে রয়েছে সভ্যতার বিবর্তন সভ্যতার বিবর্তন এর ফলে ডাইনোসর বিলুপ্তির ঘটেছে এসব ডাইনোসরের কঙ্কাল বা তাদের ধ্বংসাবশেষ মাটির নিচে পাওয়া যেত অবাক করা কান্ড হচ্ছে সাম্প্রতিক সময়ে মাটি খুঁড়ে পাওয়া গেছে ডাইনোসরের ডিম এর জীবাশ্ম।

যা সত্যিই অবিশ্বাস্য। অবিশ্বাস্য এই কারণে যে ডাইনোসর ভারতবর্ষে পাওয়া যেত না প্রাচীনকালে ডাইনোসর ভারতবর্ষের ছিল না। কিন্তু ডাইনোসরের ডিম এর জীবাশ্ম ভারতবর্ষেই পাওয়া গেছে।

ডাইনোসর কোন আদিম যুগে হেঁটে বেড়াতো তারা পৃথিবীর বুকে! এখন মাটি খুঁড়লে কেবল পাওয়া যাবে তাদের জীবাশ্ম। তবে শুনে অবাক হবেন এককালে ভারতেও ছিল এই আদিম যুগের সরীসৃপেরা। সম্প্রতি মধ্যপ্রদেশ থেকে উদ্ধার করা হলো ডাইনোসরের সাতটি ডিমের জীবাষ্ম।যা দেখে অবাক গোটা বিশ্ব।

বৃহস্পতিবার মধ্যপ্রদেশের মন্ডলা জেলা থেকে পাওয়া যায় তৃণভোজী ডাইনোসরের সাতটি জীবাশ্ম ডিম। দাবি করা হয়েছে, জীবাশ্ম গুলো প্রায় ৬৫ মিলিয়ন বছর পুরনো। ডিম গুলি সম্ভবত ডাইনোসরের এক নতুন প্রজাতির।

ডাক্তার হরিসিং গৌর মধ্যপ্রদেশের সাগর জেলার বিশ্ববিদ্যালয়ে ভুবিজ্ঞানের প্রোফেসর। তিনিই উদ্ধার করেন সেই ডিমগুলি। তিনি বলেন, “৩০ অক্টোবর আমি মন্ডলা জেলার স্কুলের এক ছাত্র প্রশান্ত শ্রীবাস্তবের কথা মতো একটি ওয়েবসাইট দেখি। ওই সেখানকার এক স্থানীয় যুবকের হাতে প্রথম দেখে ডিমগুলিকে।” তিনি জানিয়েছেন, ডিমগুলোর ওজন প্রায় ২ কেজি ৬০০ গ্রাম আর ৪০ সেন্টিমিটার পর্যন্ত দীর্ঘ।

লকডাউন এর আগে ডিম গুলিকে একটি ট্যাঙ্কে রাখা হয়েছিল। হরিসিং গৌরের ধারণা এই ডিমগুলি ডাইনোসরের একটি নতুন প্রজাতির। এখনো পর্যন্ত ভারতীয় বিজ্ঞানীদের কাছে এই প্রজাতির সম্পর্কে সেই রকম কোনো তথ্য নেই। এই সরীসৃপ প্রাণীগুলো একসময় ভারতের গুজরাট আর মধ্যপ্রদেশে পাওয়া যেত।

ডাইনোসরদের বিস্তার বুঝতে আমাদের সাহায্য করতে পারে এই নতুন আবিষ্কারটি। এমনকি তাদের বিলুপ্তির সম্পর্কেও জানা যাবে বহু তথ্য। একটি নতুন প্রজাতির
রেকর্ড বা সাপর্ড ডাইনোসরের অন্তর্ভুক্ত এই ডিমগুলি।

Leave A Reply

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More