সাবরিনা আরিফ চৌধুরী ও তাঁর স্বামী আরিফুল হক চৌধুরী মুখোমুখি

জেকেজির (জোবেদা খাতুন হেলথ কেয়ার) আরিফ ও সাবরিনাকে মুখোমুখি করা হবে

0

এবার সাবরিনা আরিফ চৌধুরী ও তাঁর স্বামী আরিফুল হক চৌধুরী মুখোমুখি হবে।

করোনা এর নমুনা পরীক্ষার নাম করে জালজালিয়াতির অভিযোগের তদন্তের জন্য গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) এবার সাবরিনা আরিফ চৌধুরী ও তাঁর স্বামী আরিফুল হক চৌধুরীকে মুখোমুখি করবে। অপরদিকে ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ (ডিবি) আদালতের কাছে আরিফুলকে মঙ্গলবার সাত দিনের রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করেছে।

ডিবি এর উপকমিশনার (তেজগাঁও) গোলাম মোস্তফা রাসেল জানান, ‌‘আমরা শক্ত ভিত্তির ওপর মামলাটাকে দাঁড় করাতে চাইছি। আর যার কারণেই আরিফুল হক চৌধুরীকে আমরা আবারও রিমান্ডে নেয়ার জন্য আবেদন করেছি। এই বিষয়ে আদালত সিদ্ধান্ত জানাবেন শুনানি শেষে।’

তদন্ত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, গ্রেপ্তার করার পর আরিফুল হক চৌধুরী, তার স্ত্রী সাবরিনা আরিফ চৌধুরী সহ ঐ প্রতিষ্ঠানের আরও চারজনের উপর দোষ চাপিয়ে দিয়েছেন। অন্যদিকে সাবরিনা আরিফ চৌধুরী বলেন, যা কিছু ঘটেছে সে সব কিছুইর জন্য দায়ী তার স্বামী আরিফ চৌধুরী। সাবরিনা আরিফ চৌধুরী তার স্বামীর জাল জালিয়াতির বিষয়গুলো বুঝে উঠতে পারেন নি।

আরও দেখুন
1 of 2

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এর সাথে চুক্তির শর্ত ভেঙে টাকার বিনিময়ে প্রথমে নমুনা পরীক্ষা করা ও তারপর ভুয়া সনদ প্রদান করার অভিযোগে গত ২৩ শে জুন তেজগাঁও বিভাগ এর পুলিশ জেকেজির প্রধান আরিফুল হক চৌধুরীসহ মোট ছয়জনকে গ্রেপ্তার করেছেন। রোববার জেকেজির চেয়ারম্যান সাবরিনা শারমিন হুসেইন ওরফে সাবরিনা আরিফ চৌধুরী গ্রেপ্তার হয়েছেন।

সোমবারে মামলা টি ডিবিতে হস্তান্তরের সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়। তদন্ত–সংশ্লিষ্ট ডিবির একজন কর্মকর্তা রিমান্ডের দ্বিতীয় দিন বলেছেন, জেকেজিতে অপরাধ হয়েছে, এই ব্যাপারে তাঁরা শতভাগ নিশ্চিত। তাঁরা এখন এ অপরাধে কার দায় কতটুকু সেটা নির্ধারণ করার জন্য কাজ করছেন।

জেকেজি (জোবেদা খাতুন হেলথ কেয়ার) সরকারি তিতুমীর কলেজকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এর কাছ থেকে অনুমতি নিয়ে, তাদের কর্মীদের জন্য প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ও অস্থায়ী আবাসস্থল হিসেবে ব্যবহার করেছিল। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর তাদের পিপিইসহ আনুষঙ্গিক জিনিসপত্র দিয়েছিল।

কলেজ কর্তৃপক্ষ জিনিসপত্র গুলো মঙ্গলবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কাছে বুঝিয়ে দিয়েছে। এর মধ্যেই ৩ হাজার ৪৪৬টি পিপিইসহ স্যাম্পল কালেকশন বক্স, স্যালাইন, মাল্টিপ্লাগ, সফট স্ট্রিপ, স্প্রে বোতল, বায়োহ্যাজার্ড রোধী ব্যাগ, বৈদ্যুতিক কেটলি, শু-কাভার, হেডক্যাপ, ও চশমা রয়েছে।

১৫ হাজার ভুয়া সনদ জেকেজির কাছে থাকা ল্যাপটপ থেকে জব্দ করেছে পুলিশ।

Leave A Reply

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More